• ৬ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ১২ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

সিলেট-৩: হাবিবের দ্বৈত নাগরিকত্বের অভিযোগ

প্রিয় সিলেট ডেস্ক
প্রকাশিত জুন ২০, ২০২১
সিলেট-৩: হাবিবের দ্বৈত নাগরিকত্বের অভিযোগ
Spread the love

সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিবের প্রার্থীতা চ্যালেঞ্জ করে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বরবারে আপিল করেছেন জাতীয় পার্টির প্রার্থী আতিকুর রহমান আতিক।

রবিবার (২০ জুন) দুপুরের পরে আতিকের আইনজীবী প্যানেলের কয়েকজন সদস্য ঢাকাস্থ প্রধান নির্বাচন কমিশনার কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে আপিলের কাগজ দাখিল করেন।

হাবিবের দ্বৈত নাগরিকত্বের কারণে তার সাংসদ প্রার্থী হওয়া বৈধ নয়- এ বিষয়টি তুলে ধরে আপিল করেন জাপা নেতা আতিক।

বিষয়টি রবিবার বিকেলে আতিকুর রহমান আতিক নিজে নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, আমি নিজে যাইনি। রবিবার দুপুরের পরে আমার আইনজীবী প্যানেলের কয়েকজন সদস্য প্রধান নির্বাচন কমিশনার কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে আপিলের কাগজপত্র দাখিল করেছেন।

আতিকের আইনজীবী প্যানেলের এক সদস্য বলেন, ‘হাবিবের প্রার্থীতা কোনোভাবেই বৈধ হতে পারে না। বাংলাদেশের সংবিধান অনুযায়ী- যদি কারো দ্বৈত নাগরিত্ব থাকে এবং এ দেশে তিনি সাংসদ প্রার্থী হতে চান তবে ৬ মাস আগে সে দেশের বাংলাদেশি দূতাবাসে সেই নাগরিকত্ব বাতিলের আবেদন করে সারেন্ডার করতে হবে। তখন দূতাবাস থেকে একটি কাগজ দেয়া হবে। সেই ডকুমেন্ট প্রার্থী নির্বচনী হলফনামার সঙ্গে সংযুক্ত করে দিবেন।

কিন্তু হাবিবুর রহমান হাবিব সারেন্ডারের বিষয় তো দূরে- তাঁর দ্বৈত নাগরিত্বের বিষয়টিই হলফনামার কোথাও উল্লেখ করেননি। ’

আতিকের আইনজীবী প্যানেলের ওই সদস্য প্রশ্ন রেখে বলেন, ‘এমপি মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী মারা গেছেন মাত্র ৩ মাস আগে। কিন্তু সারেন্ডার করতে হয় ৬ মাস আগে। হাবিব কি মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরীর মৃত্যুর আগেই সারেন্ডার করেছিলেন? তিনি কী করে জানতেন এই এমপি মারা যাবেন? এটা কীভাবে সম্ভব? আর যদি করেই থাকেন তবে তো তার যুক্তরাজ্যের নাগরিকত্ব বাতিল হয়ে যাওয়ার কথা। তিনি কি সে দেশের সব আসয়-বিষয় গুটিয়ে নিয়েছেন? সে খবরতো আমরা কেউ জানি না।’

সেই চ্যালেঞ্জিং আপিলের শুনানির সম্ভাব্য তারিখ ২২ জুন বলে জানান ওই আইনজীবী।