• ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৮ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১৬ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

ক্বীন ব্রীজ দিয়ে যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা

প্রিয় সিলেট ডেস্ক
প্রকাশিত জুলাই ২৯, ২০২১
ক্বীন ব্রীজ দিয়ে যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা

সিলেট নগরীর অন্যতম প্রবেশদ্বার ক্বিনব্রিজ দিয়ে যানবাহন চলাচলে ফের নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে সিটি করপোরেশন (সিসিক)। রিকশা, ভ্যান ও মোটরসাইকেল ব্যতিত অন্য সব ধরনের যানবাহন এ সেতু দিয়ে চলাচল করতে পারবে না।

গত রাত সাড়ে ৯টার দিকে সিলেট সিটি করপোরেশনের লোকজন ক্বিনব্রিজের প্রবেশমুখে নিষেধাজ্ঞা সংক্রান্ত সাইনবোর্ড টানিয়ে দিয়েছেন। এছাড়া নতুন করে বসানো হয়েছে লোহার ব্যারিকেড।

জানা গেছে, প্রায় শতবর্ষী ক্বিনব্রিজ কিছুটা ঝুঁকিপূর্ণ। ইতোমধ্যে বেশ কয়েকবার এটির সংস্কারকাজ করা হয়েছে। ঝুঁকির বিষয়টি বিবেচনা করে এবং যানজট যাতে না হয়, সেজন্য ক্বিনব্রিজ দিয়ে ২০১৯ সালের ১ সেপ্টেম্বর থেকে লোহার ব্যারিকেড বসিয়ে যানবাহন চলাচল নিষিদ্ধ করেছিল সিসিক। ওই সময় রিকশা চলাচলও বন্ধ করে দেয়া হয়।

তবে দক্ষিণ সুরমার মানুষের দাবির প্রেক্ষিতে কিছুদিন পর রিকশা, ভ্যান, মোটরসাইকেল চলাচলের সুযোগ করে দেয়া হয়। কিন্তু পরবর্তীতে কে বা কারা লোহার ব্যারিকেড তুলে ফেলে, শুরু হয় সিএনজি অটোরিকশা, প্রাইভেটকার, লাইটেসসহ সবধরনের যান চলাচল।

দীর্ঘদিন পর গতকাল বুধবার রাতে ফের লোহার ব্যারিকেড বসানো হয়েছে ক্বিনব্রিজের উভয় প্রবেশমুখে। সিসিকের কর্মীরা যান চলাচলের নিষেধাজ্ঞা সংক্রান্ত সাইনবোর্ডও বসিয়ে দেন তখন।

ফের যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে কথা বলতে সিসিকের প্রধান প্রকৌশলী নূর আজিজুর রহমানকে ফোন দেয়া হলে তিনি রিসিভ করেননি। পরে বারবার চেষ্টা করা হলেও তার ফোন ‘ব্যস্ত’ দেখায়।

  •  
  •  
  •  
  •  

প্রতিনিধি :: সিলেটের জৈন্তাপুরে ট্রাকচাপায় নিহত পাঁচজনের মধ্যে চারজন একই পরিবারের। আজ রোববার সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে সিলেট-তামাবিল সড়কের জৈন্তাপুর ফেরিঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত পাঁচজন হলেন জৈন্তাপুরের নিজপাট রুপচেন গ্রামের জামাল উদ্দিনের স্ত্রী সাবিয়া বেগম (৪০), সাবিয়ার মেয়ে সাকিয়া বেগম (৪), তিন মাস বয়সী ছেলে তাহমিদ হোসেন, ননদ হাবিবুন নেছা (৩৮) ও একই গ্রামের সিএনজিচালিত অটোরিকশার চালক হোসেন আহমদ (৩৫)। এ ঘটনায় আহত হয়ে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নিহত সাবিয়ার দেবর জাকারিয়া আহমদ (৪২) ও তাঁর স্ত্রী হাসিনা বেগম (৩০)। পুলিশ ও নিহত ব্যক্তিদের পরিবারসূত্র জানায়, যাত্রীবাহী একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে মহাসড়কে উঠলে সিলেট থেকে তামাবিলগামী একটি ট্রাক সেটিকে ধাক্কা দেয়। এতে সিএনজিচালিত অটোরিকশার কয়েকজন যাত্রী ছিটকে পড়ে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হন। এ সময় ঘটনাস্থলে চারজন ও হাসপাতালে নেওয়ার পথে একজনের মৃত্যু হয়। আহত জাকারিয়া আহমদ বলেন, আজ সকালে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে স্বজনের বাড়িতে যাওয়ার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে। জৈন্তাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম দস্তগীর বলেন, মরদেহগুলো সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে অটোরিকশাটি থানায় নেওয়া হয়েছে।