• ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৬ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১৪ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

এক দিনে এত মৃত্যু আগে দেখেনি সিলেট

প্রিয় সিলেট ডেস্ক
প্রকাশিত আগস্ট ৪, ২০২১
এক দিনে এত মৃত্যু আগে দেখেনি সিলেট

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সিলেট বিভাগে ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। যা চব্বিশ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড। এর আগে করোনায় একদিনে এত মৃত্যু দেখেনি সিলেট। এর আগে গত ৩০ জুলাই ও ২৮ জুলাই একদিনে বিভাগে সর্বোচ্চ ১৭ জনের মৃত্যু দেখেছিল সিলেট।

এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় সিলেট বিভাগে আরও ৭১৫ জনের মধ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। একইসময়ে সিলেটে সুস্থ হয়েছে ৩০৩ জন। আর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ১৫৭ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী।

বুধবার (৪ আগস্ট) দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সিলেট বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডা. হিমাংশু লাল রায় স্বাক্ষরিত কোভিড-১৯ কোয়ারেন্টিন ও আইসোলেশনের দৈনিক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়েছে, সিলেট বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করা শনাক্ত হওয়া ৭১৫ জনকে নিয়ে সিলেট বিভাগে মোট করোনা প্রমাণিত রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ৪২ হাজার ৭৩০ জনে। যাদের মধ্যে সিলেট জেলায় ২৩ হাজার ১৫৫ জন, সুনামগঞ্জে ৫ হাজার দুইজন, হবিগঞ্জ জেলায় ৫ হাজার ১১৪ জন, মৌলভীবাজারে ৫ হাজার৯৩৯ জন ও সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৩ হাজার ৫২০ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সিলেট বিভাগে নতুন করে শনাক্ত হওয়া ৭১৫ জন করোনা আক্রান্ত রোগীর ৪১৬ জনই সিলেট জেলার বাসিন্দা। এছাড়া বিভাগে সুনামগঞ্জ জেলার ৯৭ জন, হবিগঞ্জের ৩৮ জন ও মৌলভীবাজার জেলার বাসিন্দা ১২৬ জন। এদিকে সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরও ৩৮ জন রোগীর করোনা শনাক্ত হয়েছে।

সিলেটে বিভাগে বুধবার দৈনিক শনাক্তের হার ৩৭ দশমিক ৪৩ শতাংশ। যার ৩৮ দশমিক ৯০ শতাংশ সিলেট জেলায়, সুনামগঞ্জ ২৭ দশমিক ৯৫ শতাংশ, হবিগঞ্জে ৩৫ দশমিক ৮৫ শতাংশ ও মৌলভীবাজারে ৪৩ দশমিক ৪৫ শতাংশ।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, সিলেট বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন আরও ২০ জন রোগী। তাদের ৯ জনই সিলেট জেলার, ৩ জন সুনামগঞ্জ ও একজন হবিগঞ্জ জেলার বাসিন্দা। এদিকে সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরও ৭ জন রোগী করোনায় মারা গেছেন। এনিয়ে বিভাগে মৃত্যুবরণ করা মোট রোগীর সংখ্যা ৭৪৮ জন। এর মধ্যে সিলেট জেলার ৫৬৮ জন, সুনামগঞ্জে ৫৫ জন, হবিগঞ্জে ৩৫ জন, মৌলভীবাজারের ৬১ জন ও সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ২৯ জন।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় সিলেট বিভাগে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ১৫৭ জন। এর মধ্যে সিলেটের বিভিন্ন হাসপাতালে ১১৬ জন, ৩ জন সুনামগঞ্জে, হবিগঞ্জ জেলার ৫ জন, মৌলভীবাজারে ৮ জন ও ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ২৫জন। সব মিলিয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ৭৭১ জন। এর মধ্যে শুধু সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ৩০৪ জন রোগী। এছাড়া সিলেটের বিভিন্ন হাসপাতালে ৩২৬ জন, সুনামগঞ্জে ৬৫ জন, হবিগঞ্জে ৩৬ জন ও মৌলভীবাজারে ৩০ জন ভর্তি রয়েছেন।

একইদিনে সিলেট বিভাগে নতুন করে আরও ৩০৩ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। যাদের মধ্যে ২১৯ জন সিলেট জেলার বাসিন্দা। এছাড়া ১৮ জন সুনামগঞ্জে, ১৩ জুন হবিগঞ্জে, ৩৯ জন মৌলভীবাজার জেলার বাসিন্দা। এদিকে সিলেটের ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে আরও ২৫ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। এনিয়ে বিভাগে করোনা থেকে সুস্থ হওয়া রোগীর সংখ্যা ৩১ হাজার ৯৭৩ জন। যাদের মধ্যে সিলেট জেলায় ২১ হাজার ৬৫৮ জন, সুনামগঞ্জে ৩ হাজার ৪৪০ জন, হবিগঞ্জ জেলায় ২ হাজার ৫৯৩ জন, মৌলভীবাজারে ৪ হাজার ৪১ জন ও ওসমানী হাসপাতালে ২৪১ জন।

এদিকে সিলেটের চার জেলায় র‍্যাপিড এন্টিজেন টেষ্টের মাধ্যমে ১৯২ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়। তাদের মধ্যে সিলেট ৭২, সুনামগঞ্জ ৬৫, হবিগঞ্জ ৪৬ ও মৌলভীবাজার জেলায় ৩০ জন। এছাড়া গত চব্বিশ ঘণ্টায় সিলেট বিভাগে ১৩৭ জনকে নতুন করে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  

প্রতিনিধি :: সিলেটের জৈন্তাপুরে ট্রাকচাপায় নিহত পাঁচজনের মধ্যে চারজন একই পরিবারের। আজ রোববার সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে সিলেট-তামাবিল সড়কের জৈন্তাপুর ফেরিঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত পাঁচজন হলেন জৈন্তাপুরের নিজপাট রুপচেন গ্রামের জামাল উদ্দিনের স্ত্রী সাবিয়া বেগম (৪০), সাবিয়ার মেয়ে সাকিয়া বেগম (৪), তিন মাস বয়সী ছেলে তাহমিদ হোসেন, ননদ হাবিবুন নেছা (৩৮) ও একই গ্রামের সিএনজিচালিত অটোরিকশার চালক হোসেন আহমদ (৩৫)। এ ঘটনায় আহত হয়ে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নিহত সাবিয়ার দেবর জাকারিয়া আহমদ (৪২) ও তাঁর স্ত্রী হাসিনা বেগম (৩০)। পুলিশ ও নিহত ব্যক্তিদের পরিবারসূত্র জানায়, যাত্রীবাহী একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে মহাসড়কে উঠলে সিলেট থেকে তামাবিলগামী একটি ট্রাক সেটিকে ধাক্কা দেয়। এতে সিএনজিচালিত অটোরিকশার কয়েকজন যাত্রী ছিটকে পড়ে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হন। এ সময় ঘটনাস্থলে চারজন ও হাসপাতালে নেওয়ার পথে একজনের মৃত্যু হয়। আহত জাকারিয়া আহমদ বলেন, আজ সকালে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে স্বজনের বাড়িতে যাওয়ার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে। জৈন্তাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম দস্তগীর বলেন, মরদেহগুলো সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে অটোরিকশাটি থানায় নেওয়া হয়েছে।