• ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৬ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১৪ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

সিলেটে করোনায় আরও ১২ জনের মৃত্যু

প্রিয় সিলেট ডেস্ক
প্রকাশিত আগস্ট ২১, ২০২১
সিলেটে করোনায় আরও ১২ জনের মৃত্যু

করোনাভাইরাসে সর্বশেষ চব্বিশ ঘন্টায় সিলেটে করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন আরও ১২ জন। এ সময়ে নতুন করে ২০০ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। যা গত প্রায় দুই মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন। অবশ্য নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা কমেছে অনেক।

আজ শনিবার স্বাস্থ্য অধিদফতর সিলেট বিভাগীয় কার্যালয় জানায়, শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে শনিবার সকাল ৮টার মধ্যে সিলেট বিভাগে মারা গেছেন ১২ করোনা রোগী। এর মধ্যে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ২ জনসহ ১০ জনই মারা গেছেন সিলেট জেলায়। মৃতদের মধ্যে সুনামগঞ্জ ও মৌলভীবাজারের ১ জন করে রয়েছেন। এর আগের চব্বিশ ঘন্টায় বিভাগে মারা যান ৭ জন।

সবমিলিয়ে সিলেটে করোনায় মৃতের সংখ্যা ৯৭২ জনে দাঁড়িয়েছে। ওসমানী হাসপাতালে ৮৩ জনসহ ৭৯১ জনই মারা গেছেন সিলেট জেলায়। সুনামগঞ্জের ৬৫ জন, মৌলভীবাজারের ৭০ জন ও হবিগঞ্জের ৪৬ জন রয়েছেন মৃতের তালিকায়। সর্বশেষ চব্বিশ ঘন্টায় বিভাগে নতুন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন ২০০ জন। তাদের মধ্যে ওসমানী হাসপাতালে ৭ জনসহ ১১৩ জন সিলেট জেলায় শনাক্ত হয়েছেন।

শনাক্তদের মধ্যে সুনামগঞ্জের ২২ জন, মৌলভীবাজারের ৪৭ জন ও হবিগঞ্জের ১৮ জন রয়েছেন। ১০৩২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে তাদেরকে শনাক্ত করা হয়েছে। ১৯.৩৮ ভাগ শনাক্তের হার। গেল প্রায় দুই মাসের মধ্যে শনাক্তের হার এই প্রথম ২০ এর নিচে নামলো।

বিভাগে করোনাক্রান্ত হিসেবে শনাক্তের সংখ্যা এখন ৫১ হাজার ৪১ জন। এর মধ্যে ওসমানী হাসপাতালে ৪৩১১ জনসহ সিলেট জেলায় শনাক্তের সংখ্যা ৩১ হাজার ৫৬৬ জন। এছাড়া সুনামগঞ্জের ৫ হাজার ৯০০ জন, মৌলভীবাজারের ৭ হাজার ৪৪৪ জন ও হবিগঞ্জের ৬ হাজার ১৩১ জন রয়েছেন শনাক্তের তালিকায়।

সিলেট বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডা. হিমাংশু লালা রায় জানান, সর্বশেষ চব্বিশ ঘন্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠেছেন ৩৪২ জন। সবমিলিয়ে সুস্থ হওয়াদের সংখ্যা ৩৯ হাজার ৯৯৫ জন।

তিনি জানান, বর্তমানে ৪৭৯ জন করোনা রোগী সিলেটের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  

প্রতিনিধি :: সিলেটের জৈন্তাপুরে ট্রাকচাপায় নিহত পাঁচজনের মধ্যে চারজন একই পরিবারের। আজ রোববার সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে সিলেট-তামাবিল সড়কের জৈন্তাপুর ফেরিঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত পাঁচজন হলেন জৈন্তাপুরের নিজপাট রুপচেন গ্রামের জামাল উদ্দিনের স্ত্রী সাবিয়া বেগম (৪০), সাবিয়ার মেয়ে সাকিয়া বেগম (৪), তিন মাস বয়সী ছেলে তাহমিদ হোসেন, ননদ হাবিবুন নেছা (৩৮) ও একই গ্রামের সিএনজিচালিত অটোরিকশার চালক হোসেন আহমদ (৩৫)। এ ঘটনায় আহত হয়ে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নিহত সাবিয়ার দেবর জাকারিয়া আহমদ (৪২) ও তাঁর স্ত্রী হাসিনা বেগম (৩০)। পুলিশ ও নিহত ব্যক্তিদের পরিবারসূত্র জানায়, যাত্রীবাহী একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে মহাসড়কে উঠলে সিলেট থেকে তামাবিলগামী একটি ট্রাক সেটিকে ধাক্কা দেয়। এতে সিএনজিচালিত অটোরিকশার কয়েকজন যাত্রী ছিটকে পড়ে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হন। এ সময় ঘটনাস্থলে চারজন ও হাসপাতালে নেওয়ার পথে একজনের মৃত্যু হয়। আহত জাকারিয়া আহমদ বলেন, আজ সকালে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে স্বজনের বাড়িতে যাওয়ার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে। জৈন্তাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম দস্তগীর বলেন, মরদেহগুলো সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে অটোরিকশাটি থানায় নেওয়া হয়েছে।