• ৯ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ১১ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

সিলেটে এবার পদত্যাগ করলেন তাঁতী দলের তিন নেতা

প্রিয় সিলেট ডেস্ক
প্রকাশিত আগস্ট ২৩, ২০২১
সিলেটে এবার পদত্যাগ করলেন তাঁতী দলের তিন নেতা
Spread the love

সিলেটে এবার বিএনপির অঙ্গসংগঠন তাঁতী দল থেকে তিন নেতা পদত্যাগ করেছেন। মহানগর তাঁতী দলের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদক আজ সোমবার পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন।

পদত্যাগীরা হলেন- সিলেট মহানগর তাঁতী দলের সভাপতি ফয়েজ আহমদ দৌলত, সাধারণ সম্পাদক শওকত আলী ও সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল গফফার।

আজ সোমবার দুপুরে পদত্যাগের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সংগঠনটির মহানগর শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল গফফার। তিনি বলেন, ‘যে দলে মূল্যায়ন নাই, গণতন্ত্রের আভাস নাই, সেখানে রাজনীতি করে যাওয়া কঠিন। আমরা শহীদ জিয়ার যে আদর্শ নিয়ে রাজনীতি করতাম, তা এখন দেখতে পাচ্ছি না।’

এক প্রশ্নের জবাবে গফফার বলেন, ‘দেখুন, আমরা শুধু পদ পেলেই তো হলো না। আমাদের কর্মীরা মূল্যায়ন পাচ্ছে না। যারা নির্যাতিত হয়েছে, হামলা-মামলার শিকার হয়েছে, তারা যথাযথ মূল্যায়ন পাচ্ছে না। এজন্যই পদত্যাগ।’

এ তিন নেতার পদত্যাগের সাথে বিএনপি নেতা সামসুজ্জামান জামান ও স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাদের পদত্যাগের সম্পর্ক আছে কিনা? এমন প্রশ্নে তাঁতীদল নেতা আব্দুল গফফার বলেন, ‘সম্পর্ক বলতে জামান ভাই ত্যাগী নেতা। রাজপথের ইলিয়াস ভাই (ইলিয়াস আলী) পরেই আন্দোলন-সংগ্রামে জামান ভাইয়ের অবদান বেশি। তার মূল্যায়ন না হলে….তার তুলনায় আমরা তো বহু নিচে। জামান ভাইয়ের মূল্যায়ন না হওয়ায় আমরা দুঃখ পেয়েছি।’

দীর্ঘদিন পর গত মঙ্গলবার রাতে জেলা ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়। কমিটি ঘোষণার পরদিন, বুধবার রাতে বিএনপির কেন্দ্রীয় সহ স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদকের পদ থেকে সরে দাঁড়ান এডভোকেট সামসুজ্জামান জামান। তিনি একসময় জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলন করে তিনি অভিযোগ করেন, এবারের জেলা ও মহানগর শাখার আহবায়ক কমিটিতে ত্যাগী ও পরীক্ষিতদের অবমূল্যায়ন করা হয়েছে।

এরপর শনিবার রাতে জেলা ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক কমিটি থেকে পদত্যাগ করেন ১১ নেতা। সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের কাছে চিঠি পাঠিয়ে তারা পদত্যাগের কথা জানান।

প্রতিনিধি :: সিলেটের জৈন্তাপুরে ট্রাকচাপায় নিহত পাঁচজনের মধ্যে চারজন একই পরিবারের। আজ রোববার সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে সিলেট-তামাবিল সড়কের জৈন্তাপুর ফেরিঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত পাঁচজন হলেন জৈন্তাপুরের নিজপাট রুপচেন গ্রামের জামাল উদ্দিনের স্ত্রী সাবিয়া বেগম (৪০), সাবিয়ার মেয়ে সাকিয়া বেগম (৪), তিন মাস বয়সী ছেলে তাহমিদ হোসেন, ননদ হাবিবুন নেছা (৩৮) ও একই গ্রামের সিএনজিচালিত অটোরিকশার চালক হোসেন আহমদ (৩৫)। এ ঘটনায় আহত হয়ে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নিহত সাবিয়ার দেবর জাকারিয়া আহমদ (৪২) ও তাঁর স্ত্রী হাসিনা বেগম (৩০)। পুলিশ ও নিহত ব্যক্তিদের পরিবারসূত্র জানায়, যাত্রীবাহী একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে মহাসড়কে উঠলে সিলেট থেকে তামাবিলগামী একটি ট্রাক সেটিকে ধাক্কা দেয়। এতে সিএনজিচালিত অটোরিকশার কয়েকজন যাত্রী ছিটকে পড়ে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হন। এ সময় ঘটনাস্থলে চারজন ও হাসপাতালে নেওয়ার পথে একজনের মৃত্যু হয়। আহত জাকারিয়া আহমদ বলেন, আজ সকালে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে স্বজনের বাড়িতে যাওয়ার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে। জৈন্তাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম দস্তগীর বলেন, মরদেহগুলো সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে অটোরিকশাটি থানায় নেওয়া হয়েছে।