• ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১১ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১৯শে সফর, ১৪৪৩ হিজরি

সিলেটে আরও ১০ জনের মৃত্যু

প্রিয় সিলেট ডেস্ক
প্রকাশিত আগস্ট ২৫, ২০২১
সিলেটে আরও ১০ জনের মৃত্যু

সিলেট বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে মৃত্যু ও শনাক্ত বেড়েছে। এ সময় ১০ জনের মৃত্যু ও ২৩০ জন শনাক্ত হয়েছে। নতুন মৃত্যুসহ বিভাগে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ১৫ জন। এ পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৫১ হাজার ৮৫৫ জন।

বুধবার (২৫ আগস্ট) দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সিলেট বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডা. হিমাংশু লাল রায় স্বাক্ষরিত কোভিড-১৯ কোয়ারেন্টিন ও আইসোলেশনের দৈনিক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানানো হয়। এর আগে গতকাল মঙ্গলবার অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে জানিয়েছিল, আগের ২৪ ঘণ্টায় ৯ জনের মৃত্যু ২০৪ জন আক্রান্ত হয়েছিল।

এতে বলা হয়েছে, সিলেট বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করা শনাক্ত হওয়া ২৩০ জনকে নিয়ে সিলেট বিভাগে মোট করোনা প্রমাণিত রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ৫১ হাজার ৮৫৫ জনে। যাদের মধ্যে সিলেট জেলায় ২৭ হাজার ৬৩১ জন, সুনামগঞ্জে ৬ হাজার ১৮, হবিগঞ্জ জেলায় ৬ হাজার ২২১ জন, মৌলভীবাজারে ৭ হাজার ৫৭৩ জন ও সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৪ হাজার ৪১২ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সিলেট বিভাগে নতুন করে শনাক্ত হওয়া ২৩০ জন করোনা আক্রান্ত রোগীর ১১১ জনই সিলেট জেলার বাসিন্দা। এছাড়া বিভাগে সুনামগঞ্জ জেলার ৫১ জন, হবিগঞ্জের ১৬ জন ও মৌলভীবাজার জেলার বাসিন্দা ২৪ জন। এদিকে সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরও ২৮ জন রোগীর করোনা শনাক্ত হয়েছে।

সিলেটে বিভাগে বুধবার দৈনিক শনাক্তের হার ১৫ দশমিক শূন্য ১১ শতাংশ। যার ১৭ দশমিক শূন্য ৩৫ শতাংশ সিলেট জেলায়, সুনামগঞ্জ ১১ দশমিক ৮৯ শতাংশ, হবিগঞ্জে ১১ দশমিক ৬৮ শতাংশ ও মৌলভীবাজারে ১৫ দশমিক ৪৮ শতাংশ।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, সিলেট বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন আরও ১০ জন রোগী। তাদের ৯ জনই সিলেট জেলার অধিবাসী। একজন সুনামগঞ্জ জেলার বাসিন্দা। এনিয়ে বিভাগে মৃত্যুবরণ করা মোট রোগীর সংখ্যা ১ হাজার ১৫ জন। এর মধ্যে সিলেট জেলার ৭৩৮ জন, সুনামগঞ্জে ৭০ জন, হবিগঞ্জে ৪৬ জন, মৌলভীবাজারের ৭০ জন ও সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৯১ জন।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় সিলেট বিভাগে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ২২ জন। এর মধ্যে সিলেটের বিভিন্ন হাসপাতালে ১৭ জন, ২ জন হবিগঞ্জে ও ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৩ জন। সব মিলিয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ৬০৯ জন। এর মধ্যে শুধু সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ২১৮ জন রোগী। এছাড়া সিলেটের বিভিন্ন হাসপাতালে ৩১১ জন, সুনামগঞ্জে ৩৪ জন, হবিগঞ্জে ২৬ জন ও মৌলভীবাজারে ২০ জন ভর্তি রয়েছেন।

একইদিনে সিলেট বিভাগে নতুন করে আরও ৪৫৬ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। যাদের মধ্যে ৩২৮ জন সিলেট জেলার বাসিন্দা। এছাড়া সুনামগঞ্জে ৮৮ জন ও মৌলভীবাজার জেলার বাসিন্দা ৩৭ জন। এদিকে সিলেটের ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে আরও ৩ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। এনিয়ে বিভাগে করোনা থেকে সুস্থ হওয়া রোগীর সংখ্যা ৪১ হাজার ৭৯১ জন। যাদের মধ্যে সিলেট জেলায় ২৭ হাজার ৬৭১ জন, সুনামগঞ্জে ৪ হাজার ৬০৯ জন, হবিগঞ্জ জেলায় ৩ হাজার ৩৩৯ জন, মৌলভীবাজারে ৫ হাজার ৭১০ জন ও ওসমানী হাসপাতালে ৪৬২ জন।

এদিকে সিলেটের চার জেলায় র‍্যাপিড এন্টিজেন টেস্টের মাধ্যমে ৪১ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়। যাদের ১৬ জন সিলেট, ১৮ জন সুনামগঞ্জ, ৪ জন হবিগঞ্জের ও ৩ জন মৌলভীবাজার জেলার। এছাড়া গত চব্বিশ ঘণ্টায় সিলেট বিভাগে ৯৫ জনকে নতুন করে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  

প্রতিনিধি :: সিলেটের জৈন্তাপুরে ট্রাকচাপায় নিহত পাঁচজনের মধ্যে চারজন একই পরিবারের। আজ রোববার সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে সিলেট-তামাবিল সড়কের জৈন্তাপুর ফেরিঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত পাঁচজন হলেন জৈন্তাপুরের নিজপাট রুপচেন গ্রামের জামাল উদ্দিনের স্ত্রী সাবিয়া বেগম (৪০), সাবিয়ার মেয়ে সাকিয়া বেগম (৪), তিন মাস বয়সী ছেলে তাহমিদ হোসেন, ননদ হাবিবুন নেছা (৩৮) ও একই গ্রামের সিএনজিচালিত অটোরিকশার চালক হোসেন আহমদ (৩৫)। এ ঘটনায় আহত হয়ে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নিহত সাবিয়ার দেবর জাকারিয়া আহমদ (৪২) ও তাঁর স্ত্রী হাসিনা বেগম (৩০)। পুলিশ ও নিহত ব্যক্তিদের পরিবারসূত্র জানায়, যাত্রীবাহী একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে মহাসড়কে উঠলে সিলেট থেকে তামাবিলগামী একটি ট্রাক সেটিকে ধাক্কা দেয়। এতে সিএনজিচালিত অটোরিকশার কয়েকজন যাত্রী ছিটকে পড়ে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হন। এ সময় ঘটনাস্থলে চারজন ও হাসপাতালে নেওয়ার পথে একজনের মৃত্যু হয়। আহত জাকারিয়া আহমদ বলেন, আজ সকালে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে স্বজনের বাড়িতে যাওয়ার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে। জৈন্তাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম দস্তগীর বলেন, মরদেহগুলো সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে অটোরিকশাটি থানায় নেওয়া হয়েছে।