• ২৭শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১৩ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ২৪শে জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

তালেবান নিয়ে ভারতের সর্বদলের বৈঠকে যেসব আলোচনা হলো

প্রিয় সিলেট ডেস্ক
প্রকাশিত আগস্ট ২৬, ২০২১
তালেবান নিয়ে ভারতের সর্বদলের বৈঠকে যেসব আলোচনা হলো
Spread the love

আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ তালেবানদের কাছে যাওয়ার পর সবচেয়ে উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠায় রয়েছে ভারত। এ বিষয়ে করণীয় ঠিক করতে বৃহস্পতিবার নরেন্দ্র মোদি সরকার সর্বদলের বৈঠক আহ্বান করেন। তালেবান নিয়ে কী ভাবছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার?’

পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের কাছে জানতে চাইল বিরোধী দলের নেতারা। ওই প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় তাদেরকে জানিয়েছে, ‘তালিবান ইস্যুতেও অন্যান্য দেশের মতই ধীরে চলো নীতি নিচ্ছে ভারত। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

খবরে বলা হয়, জয়শংকর জানিয়েছেন যে, কাবুল বা আন্তর্জাতিক মহলে কোনও নিশ্চয়তা পাওয়া যায়নি। আফগানিস্তানে আটকে থাকা ভারতীয়দের দেশে ফেরানোর ওপর সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব আরোপ করা হচ্ছে। সেইসঙ্গে অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে আফগানদের দিকে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে। আফগানিস্তান পরিস্থিতি নিয়ে সর্বদলীয় বৈঠকে এমনই মন্তব্য করলেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শংকর।

বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তৃণমূল নেতা সৌগত রায় বলেন, ‘তালেবান ইস্যুতে আমরা সরকারের পাশে আছি। আমাদের নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বার্তা দিয়েছেন, এই কঠিন পরিস্থিতিতে জাতীয় স্বার্থে সকলকেই একত্রে থাকতে হবে। একইরকম বার্তা দিতে হবে সকলকে। সেই বক্তব্যই আমরা বৈঠকে জানিয়েছি।’

তিন ঘণ্টার বৈঠকে কী কী বিষয় নিয়ে আলোচনা হলো? ইন্ডিয়ান টাইমসের খবরে বলা হয়, সর্বদলীয় বৈঠকে তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে একাধিক বিষয় সামনে আনা হয়। সৌগত রায় বলেন, ‘প্রথমত আমরা জানতে চেয়েছিলাম আফগানিস্তানে আটকে থাকা ভারতীয়দের দেশে ফিরিয়ে আনতে কী কী ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। এখনও অনেকে সেখানে আটকে রয়েছেন। পশ্চিমবঙ্গের ১২৫ জন ব্যক্তি ওখানে রয়েছেন। সেই তালিকাও আমরা সরকারের কাছে জমা দিয়েছি।’

খবরে বলা হয়, সরকারের পক্ষ থেকে এই নিয়ে বিস্তারিত ব্যাখ্যা করে সকলকে নিরাপদে ফিরিয়ে আনার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে বৈঠকে। পাশাপাশি, তৃণমূলের পক্ষ থেকে জানতে চাওয়া হয়, দীর্ঘদিন ধরে আফগানিস্তানের যে সমস্ত ক্ষেত্রে ভারত সরকার বিনিয়োগ করেছে, সেগুলির ভবিষ্যৎ কী হবে? এই নিয়ে কংক্রিট কোনও উত্তর দিতে না পারলেও পরবর্তীতে বিস্তারিত আলোচনা হবে বলেও জানায় কেন্দ্র।

তৃণমূল নেতা সৌগত রায় বলেন, ‘ইন্টারন্যাশনাল কমিটি অব নেশনের বৈঠকে আফগানিস্তান ইস্যুতে ভারত কেন ঠাঁই পেল না, তা নিয়েও প্রশ্ন তোলা হয়েছিল। যা নিয়েও পর্যালোচনা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে কেন্দ্র।’

প্রতিনিধি :: সিলেটের জৈন্তাপুরে ট্রাকচাপায় নিহত পাঁচজনের মধ্যে চারজন একই পরিবারের। আজ রোববার সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে সিলেট-তামাবিল সড়কের জৈন্তাপুর ফেরিঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত পাঁচজন হলেন জৈন্তাপুরের নিজপাট রুপচেন গ্রামের জামাল উদ্দিনের স্ত্রী সাবিয়া বেগম (৪০), সাবিয়ার মেয়ে সাকিয়া বেগম (৪), তিন মাস বয়সী ছেলে তাহমিদ হোসেন, ননদ হাবিবুন নেছা (৩৮) ও একই গ্রামের সিএনজিচালিত অটোরিকশার চালক হোসেন আহমদ (৩৫)। এ ঘটনায় আহত হয়ে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নিহত সাবিয়ার দেবর জাকারিয়া আহমদ (৪২) ও তাঁর স্ত্রী হাসিনা বেগম (৩০)। পুলিশ ও নিহত ব্যক্তিদের পরিবারসূত্র জানায়, যাত্রীবাহী একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে মহাসড়কে উঠলে সিলেট থেকে তামাবিলগামী একটি ট্রাক সেটিকে ধাক্কা দেয়। এতে সিএনজিচালিত অটোরিকশার কয়েকজন যাত্রী ছিটকে পড়ে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হন। এ সময় ঘটনাস্থলে চারজন ও হাসপাতালে নেওয়ার পথে একজনের মৃত্যু হয়। আহত জাকারিয়া আহমদ বলেন, আজ সকালে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে স্বজনের বাড়িতে যাওয়ার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে। জৈন্তাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম দস্তগীর বলেন, মরদেহগুলো সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে অটোরিকশাটি থানায় নেওয়া হয়েছে।