• ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৬ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১৪ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

বিয়ানীবাজারে সড়ক দুর্ঘটনায় স্কুল শিক্ষক নিহত

প্রিয় সিলেট ডেস্ক
প্রকাশিত সেপ্টেম্বর ২, ২০২১
বিয়ানীবাজারে সড়ক দুর্ঘটনায় স্কুল শিক্ষক নিহত

সিলেট-বিয়ানীবাজার আঞ্চলিক মহাসড়কের জলঢুপ এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় এক স্কুল শিক্ষক নিহত হয়েছেন। তার বাড়ি পাশ্ববর্তী বড়লেখা উপজেলার তারাদরম গ্রামে।

বুধবার রাত পৌনে ১০টার দিকে জলঢুপের ঝুঁকিপূর্ণ বাঁকে অজ্ঞাত যানবাহনের ধাক্কায় তিনি ঘটনাস্থলে মারা যান। লাশের পাশে থাকা লাল রঙের মোটর সাইকেলটি (সিলেট ল১১-৪৮৭০) ধুমড়ে মুচড়ে গেছে। নিহত স্কুল শিক্ষক আইয়ুব আলী (৬২) খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ছিলেন।

তিনি বড়লেখা উপজেলার তারাদরম এলাকার মৃত আব্দুল মালিকের পুত্র। গোলাপগঞ্জ উপজেলার ভাদেশ্বর নাসির উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ে তিনি শিক্ষক ছিলেন। সড়কের উপর তার লাশ প্রথমে দেখতে পান স্থানীয় খায়রুল আলম নামের এক যুবক। তিনি নিহতের স্বজনদের সাথে রাস্তায় পড়ে থাকা মোবাইল ফোনটির মাধ্যমে যোগাযোগ করেন। খবর পেয়ে বিয়ানীবাজার থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশের সুরতহাল সম্পন্ন করেছে। নিহতের মাথা ও মুখ পুরোটাই থেতলে গেছে। সড়কের উপর ছড়িয়ে রয়েছে মস্তিকের ক্ষতবিক্ষত অংশ।

বিয়ানীবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হিল্লোল রায় বলেন, লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরী করে এ্যাম্বুল্যান্সে করে থানায় নেয়া হয়েছে। আগামীকাল ময়না তদন্তের জন্য সিলেটের ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হবে।

তিনি জানান, প্রথম লাশটি দেখেন খায়রুল আলম নামের স্থানীয় এক যুবক। লাশের কাছাকাছি আসার আগে তাকে দ্রুত গতিতে পাশ কাটিয়ে একটি পিকআপ ভ্যান চলে যায়। লাশের অবস্থান ও দুর্ঘটনা কবলিত মোটর সাইকেলের অবস্থান সড়কের বাম পাশে রয়েছে। সেজন্য বলা যায় নিহত যুবক সড়কের সঠিক অবস্থানেই ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  

প্রতিনিধি :: সিলেটের জৈন্তাপুরে ট্রাকচাপায় নিহত পাঁচজনের মধ্যে চারজন একই পরিবারের। আজ রোববার সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে সিলেট-তামাবিল সড়কের জৈন্তাপুর ফেরিঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত পাঁচজন হলেন জৈন্তাপুরের নিজপাট রুপচেন গ্রামের জামাল উদ্দিনের স্ত্রী সাবিয়া বেগম (৪০), সাবিয়ার মেয়ে সাকিয়া বেগম (৪), তিন মাস বয়সী ছেলে তাহমিদ হোসেন, ননদ হাবিবুন নেছা (৩৮) ও একই গ্রামের সিএনজিচালিত অটোরিকশার চালক হোসেন আহমদ (৩৫)। এ ঘটনায় আহত হয়ে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নিহত সাবিয়ার দেবর জাকারিয়া আহমদ (৪২) ও তাঁর স্ত্রী হাসিনা বেগম (৩০)। পুলিশ ও নিহত ব্যক্তিদের পরিবারসূত্র জানায়, যাত্রীবাহী একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে মহাসড়কে উঠলে সিলেট থেকে তামাবিলগামী একটি ট্রাক সেটিকে ধাক্কা দেয়। এতে সিএনজিচালিত অটোরিকশার কয়েকজন যাত্রী ছিটকে পড়ে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হন। এ সময় ঘটনাস্থলে চারজন ও হাসপাতালে নেওয়ার পথে একজনের মৃত্যু হয়। আহত জাকারিয়া আহমদ বলেন, আজ সকালে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে স্বজনের বাড়িতে যাওয়ার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে। জৈন্তাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম দস্তগীর বলেন, মরদেহগুলো সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে অটোরিকশাটি থানায় নেওয়া হয়েছে।