• ১৮ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ৩রা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ২০শে মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

সিলেটে কমেছে মৃত্যু, বেড়েছে শনাক্ত

প্রিয় সিলেট ডেস্ক
প্রকাশিত সেপ্টেম্বর ২, ২০২১
সিলেটে কমেছে মৃত্যু, বেড়েছে শনাক্ত
Spread the love

সিলেট বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় ৭ জনের মৃত্যু ও ১০৯ জন শনাক্ত হয়েছে। নতুন মৃত্যুসহ বিভাগে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৮২ জন। এ পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৫৩ হাজার ৯২ জন।

বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সিলেট বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডা. হিমাংশু লাল রায় স্বাক্ষরিত করোনা বিষয়ক দৈনন্দিন তথ্য বিবরণী থেকে এসব তথ্য জানা গেছে। এর আগে গতকাল বুধবার অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে জানিয়েছিল, আগের ২৪ ঘণ্টায় ৮ জনের মৃত্যু ৮৯ জন আক্রান্ত হয়েছিল।

তথ্য বিবরণী থেকে যায়, সিলেট বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় ৮৮৮ টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। মোট পরীক্ষার ১২ দশমিক ২৭ শতাংশের করোনা শনাক্ত হয়। এর মধ্যে সিলেট জেলায় শনাক্তের হার ৯ দশমিক ৮৩ শতাংশ, সুনামগঞ্জে ১৮ দশমিক ৫৫ শতাংশ, হবিগঞ্জে ১৭ দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ এবং মৌলভীবাজারে ১১ দশমিক ৮৬ শতাংশ।

নতুন শনাক্ত হওয়া ১০৯ জনের মধ্যে ৫২ জন সিলেট জেলার বাসিন্দা। বাকিদের মধ্যে সুনামগঞ্জের ২৩ জন, হবিগঞ্জের ২০ জন এবং মৌলভীবাজার জেলার ১৪ জন।

এ নিয়ে বিভাগে করোনাভাইরাস শনাক্তের সংখ্যা ৫৩ হাজার ৯২ জনে দাঁড়িয়েছে। এদের মধ্যে সিলেট জেলায় সর্বোচ্চ ৩২ হাজার ৭২৫ জন, সুনামগঞ্জে ৬ হাজার ১১৩ জন, হবিগঞ্জে ৬ হাজার ৪৭৭ জন ও মৌলভীবাজারে ৭ হাজার ৭৭৭ জন রয়েছেন।

একই সময়ে সিলেটে ৪৮০ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। সুস্থদের মধ্যে ১০৯ জনই সিলেট জেলার বাসিন্দা। বাকিদের মধ্যে সুনামগঞ্জের ৩২৫ জন, হবিগঞ্জের ১০ জন ও মৌলভীবাজার জেলার ৩৬ জন রয়েছেন।

বিভাগে এ পর্যন্ত ৪৪ হাজার ২৭৮ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়েছেন। এর মধ্যে সিলেট জেলায় ২৯ হাজার ৪৭৫ জন, সুনামগঞ্জে ৫ হাজার ২৩৯ জন, হবিগঞ্জ জেলায় ৩ হাজার ৩৯৪ জন ও মৌলভীবাজারে ৬ হাজার ১৭০ জন সুস্থ হয়েছেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে মারা যাওয়া ৭ জনের সকলেই সিলেট জেলার বাসিন্দা। এনিয়ে বিভাগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন ১ হাজার ৮২ জন। এর মধ্যে সিলেট জেলায় সর্বোচ্চ ৮৯২ জন, সুনামগঞ্জে ৭২ জন, হবিগঞ্জে ৪৬ জন এবং মৌলভীবাজার জেলায় ৭২ জন মারা গেছেন।

এদিকে একই সময়ে সিলেট বিভাগে করোনা আক্রান্ত হয়ে ২১ জন বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। যাদের ১৮ জনই সিলেট জেলায়।

এ নিয়ে বিভাগের বিভিন্ন হাসপাতালে ৩৫২ জন রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এর মধ্যে সিলেট জেলার বিভিন্ন হাসপাতালে ২৯৭ জন, সুনামগঞ্জের হাসপাতালে ২৬ জন, হবিগঞ্জের হাসপাতালে ১৪ জন ও মৌলভীবাজারের হাসপাতালে ১৫ জন চিকিৎসাধীন আছেন।

প্রতিনিধি :: সিলেটের জৈন্তাপুরে ট্রাকচাপায় নিহত পাঁচজনের মধ্যে চারজন একই পরিবারের। আজ রোববার সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে সিলেট-তামাবিল সড়কের জৈন্তাপুর ফেরিঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত পাঁচজন হলেন জৈন্তাপুরের নিজপাট রুপচেন গ্রামের জামাল উদ্দিনের স্ত্রী সাবিয়া বেগম (৪০), সাবিয়ার মেয়ে সাকিয়া বেগম (৪), তিন মাস বয়সী ছেলে তাহমিদ হোসেন, ননদ হাবিবুন নেছা (৩৮) ও একই গ্রামের সিএনজিচালিত অটোরিকশার চালক হোসেন আহমদ (৩৫)। এ ঘটনায় আহত হয়ে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নিহত সাবিয়ার দেবর জাকারিয়া আহমদ (৪২) ও তাঁর স্ত্রী হাসিনা বেগম (৩০)। পুলিশ ও নিহত ব্যক্তিদের পরিবারসূত্র জানায়, যাত্রীবাহী একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে মহাসড়কে উঠলে সিলেট থেকে তামাবিলগামী একটি ট্রাক সেটিকে ধাক্কা দেয়। এতে সিএনজিচালিত অটোরিকশার কয়েকজন যাত্রী ছিটকে পড়ে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হন। এ সময় ঘটনাস্থলে চারজন ও হাসপাতালে নেওয়ার পথে একজনের মৃত্যু হয়। আহত জাকারিয়া আহমদ বলেন, আজ সকালে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে স্বজনের বাড়িতে যাওয়ার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে। জৈন্তাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম দস্তগীর বলেন, মরদেহগুলো সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে অটোরিকশাটি থানায় নেওয়া হয়েছে।