• ২৭শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১৩ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ২৪শে জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

আফগান ইস্যুতে প্রতিবেশী ৬ দেশের সম্মেলনে যে আলোচনা হলো

প্রিয় সিলেট ডেস্ক
প্রকাশিত সেপ্টেম্বর ৯, ২০২১
আফগান ইস্যুতে প্রতিবেশী ৬ দেশের সম্মেলনে যে আলোচনা হলো
Spread the love

আফগানিস্তান পরিস্থিতি নিয়ে ছয় প্রতিবেশী দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের ভার্চুয়াল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে ইরান বলেছে, আফগানিস্তানের জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলনের মাধ্যমে দেশটিতে শান্তি ও স্থিতিশীলতা চায় তেহরান।

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাঈদ খাতিবজাদে বুধবার রাতে একথা জানিয়ে বলেন, আফগান জনগণের ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটিয়ে কীভাবে দেশটিতে শান্তি ও স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠা করা যায় তা নিয়েই মূলত বুধবারের বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। বৈঠকে ইরান, পাকিস্তান, চীন, তাজিকিস্তান, উজবেকিস্তান ও তুর্কমেনিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা অংশগ্রহণ করেন।

ভার্চুয়াল বৈঠকে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমির-আব্দুল্লাহিয়ান যে বক্তব্য দেন সে সম্পর্কেও সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন খাতিবজাদে। তিনি বলেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ বৈঠকে বলেছেন, আফগানিস্তানের বর্তমান পরিস্থিতি দেশটিতে আমেরিকার গত দুই দশকের অবৈধ উপস্থিতির ফল। এখন এ পরিস্থিতি থেকে উত্তরণের জন্য আফগান নেতৃবৃন্দকে সর্বোচ্চ প্রজ্ঞা কাজে লাগাতে হবে এবং প্রতিবেশী দেশগুলোকেও এ কাজে কাবুলকে সহযোগিতা করতে হবে।

বৈঠকে আব্দুল্লাহিয়ান আরও বলেন, আফগানিস্তানে বিদেশি সামরিক হস্তক্ষেপ এমন একটি ভুল সমসাময়িক ইতিহাসে কয়েকবার যার পুনরাবৃত্তি হয়েছে। কাজেই আফগানিস্তানে যাতে আবার কোনো বিদেশি হস্তক্ষেপ হতে না পারে সেজন্য প্রতিবেশী দেশগুলোকে সতর্ক থাকতে হবে। তিনি আরও বলেন, আফগানিস্তানের ক্ষমতা নিয়ন্ত্রণকারী তালেবানকে এখন সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলো থেকে নিজেদেরকে দূরে রাখতে হবে।

খাতিবজাদে জানান, আফগানিস্তানের প্রতিবেশী দেশগুলোর প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে পরবর্তী বৈঠক তেহরানে অনুষ্ঠিত হবে বলে বুধবারের ভার্চুয়াল বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ বৈঠকে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমির-আব্দুল্লাহিয়ান, চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই, পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশি, তুর্কমেনিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রশিদ মারদোভ, তাজিকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সিরাজুদ্দিন মেহরুদ্দিন এবং উজবেকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুলআজিজ কামেলোভ অংশগ্রহণ করেন।

প্রতিনিধি :: সিলেটের জৈন্তাপুরে ট্রাকচাপায় নিহত পাঁচজনের মধ্যে চারজন একই পরিবারের। আজ রোববার সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে সিলেট-তামাবিল সড়কের জৈন্তাপুর ফেরিঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত পাঁচজন হলেন জৈন্তাপুরের নিজপাট রুপচেন গ্রামের জামাল উদ্দিনের স্ত্রী সাবিয়া বেগম (৪০), সাবিয়ার মেয়ে সাকিয়া বেগম (৪), তিন মাস বয়সী ছেলে তাহমিদ হোসেন, ননদ হাবিবুন নেছা (৩৮) ও একই গ্রামের সিএনজিচালিত অটোরিকশার চালক হোসেন আহমদ (৩৫)। এ ঘটনায় আহত হয়ে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নিহত সাবিয়ার দেবর জাকারিয়া আহমদ (৪২) ও তাঁর স্ত্রী হাসিনা বেগম (৩০)। পুলিশ ও নিহত ব্যক্তিদের পরিবারসূত্র জানায়, যাত্রীবাহী একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে মহাসড়কে উঠলে সিলেট থেকে তামাবিলগামী একটি ট্রাক সেটিকে ধাক্কা দেয়। এতে সিএনজিচালিত অটোরিকশার কয়েকজন যাত্রী ছিটকে পড়ে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হন। এ সময় ঘটনাস্থলে চারজন ও হাসপাতালে নেওয়ার পথে একজনের মৃত্যু হয়। আহত জাকারিয়া আহমদ বলেন, আজ সকালে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে স্বজনের বাড়িতে যাওয়ার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে। জৈন্তাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম দস্তগীর বলেন, মরদেহগুলো সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে অটোরিকশাটি থানায় নেওয়া হয়েছে।