• ২৬শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১০ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ২০শে রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

ফেসবুক স্ট্যাটাসের জের ধরে সংঘর্ষ, বিয়ানীবাজারে আহত ৬

প্রিয় সিলেট ডেস্ক
প্রকাশিত সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২১
ফেসবুক স্ট্যাটাসের জের ধরে সংঘর্ষ, বিয়ানীবাজারে আহত ৬

সিলেটের বিয়ানীবাজারের জলঢুপে ফেসবুকে মন্তব্যের জের ধরে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে উভয় পক্ষে কমপক্ষে ৬ জন আহত হয়েছেন।

শুক্রবার বিকালে জলঢুপ উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন, সাবেক ছাত্রনেতা জলঢুপ কালিবহর এলাকার কলিম উদ্দিন, কাদির আহমদ, জলঢুপ স্পোর্টস একাডেমির প্রতিষ্ঠাতা কমলাবাড়ি এলাকার জামাল আহমদ, সাবেক ফুটবলার ডালিম উদ্দিন, বাবর আহমদ।

এ সময় সংঘর্ষ থামাতে আসা বেশ কয়েকজন আহত হন। তারা বিয়ানীবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিলেও অবস্থা আশংকাজনক হওয়া কলিম আহমদ, ডালিম আহমদ সহ ৪ জনকে সিলেটে প্রেরণ করা হয়েছে।

অতর্কিত হামলার শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ করেছন সাবেক ফুটবলার জামাল আহমদ বলেন, কাকরদিয়া এলাকায় ফুটবল খেলতে যাওয়ার জন্য বের হয়েছিলাম। জলঢুপ এলাকায় আসার পর কলিম-কাদিরসহ বেশ কয়েকজন হামলা করে। তাকে রক্ষা করতে এসে আরও কয়েকজন আহত হয়েছেন তাদের নিয়ে তিনি সিলেট যাচ্ছেন।

ফেসবুকে একটি মন্তব্যের প্রতিবাদ করতে গিয়ে এই সংঘর্ষ বলে অভিযোগ কলিম আহমদের। স্থানীয়দের হামলায় তিনিসহ তারা বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।

কলিম বলেন, ভাদেশ্বর এলাকার মীরগঞ্জে আমাদের নতুনকুঁড়ি ক্লাব ফুটবল খেলে পরাজিত হয়েছে। এ নিয়ে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাসকে কেন্দ্র করে জামালের অনুসারীরা বাজে মন্তব্য করে। এর প্রতিবাদ জানালে জামাল-ডালিমরা আমাদের উপর অতর্কিত হামলা চালিয়েছে।

বিয়ানীবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হিল্লোল রায় বলেন, খবর পেয়ে বিয়ানীবাজার থানা পুলিশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং পরে জলঢুপ এলাকায় গিয়ে উভয় পক্ষের সাথে কথা বলে পরিস্থিতি শান্ত করার চেষ্টা করছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  

প্রতিনিধি :: সিলেটের জৈন্তাপুরে ট্রাকচাপায় নিহত পাঁচজনের মধ্যে চারজন একই পরিবারের। আজ রোববার সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে সিলেট-তামাবিল সড়কের জৈন্তাপুর ফেরিঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত পাঁচজন হলেন জৈন্তাপুরের নিজপাট রুপচেন গ্রামের জামাল উদ্দিনের স্ত্রী সাবিয়া বেগম (৪০), সাবিয়ার মেয়ে সাকিয়া বেগম (৪), তিন মাস বয়সী ছেলে তাহমিদ হোসেন, ননদ হাবিবুন নেছা (৩৮) ও একই গ্রামের সিএনজিচালিত অটোরিকশার চালক হোসেন আহমদ (৩৫)। এ ঘটনায় আহত হয়ে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নিহত সাবিয়ার দেবর জাকারিয়া আহমদ (৪২) ও তাঁর স্ত্রী হাসিনা বেগম (৩০)। পুলিশ ও নিহত ব্যক্তিদের পরিবারসূত্র জানায়, যাত্রীবাহী একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে মহাসড়কে উঠলে সিলেট থেকে তামাবিলগামী একটি ট্রাক সেটিকে ধাক্কা দেয়। এতে সিএনজিচালিত অটোরিকশার কয়েকজন যাত্রী ছিটকে পড়ে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হন। এ সময় ঘটনাস্থলে চারজন ও হাসপাতালে নেওয়ার পথে একজনের মৃত্যু হয়। আহত জাকারিয়া আহমদ বলেন, আজ সকালে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে স্বজনের বাড়িতে যাওয়ার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে। জৈন্তাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম দস্তগীর বলেন, মরদেহগুলো সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে অটোরিকশাটি থানায় নেওয়া হয়েছে।